ফিরে দেখা

88

 

২০১৪ সালে আমি যে কথাটা সবচেয়ে বেশি শুনেছি তা হলো, “তুই/তুমি/আপনি অনেক ভাগ্যবান/লাকি।”

আমি ভাগ্যবান – এমন কোন ধারণা আমার মাঝে ২০০৮ এর আগে ছিলো না। ২০০৮ এ এসে আমি হঠাৎ করে বুঝতে পারি যে আমি ভাগ্যবান। সত্যি বলতে গেলে ২০০৮ এ আমি আমার আমিকে ঠিকভাবে খুঁজে পাই বা চিনতে পারি। আমার মতে আমার সবচেয়ে ভালো সময় ছিল ২০০৮ সাল। কেননা এর আগের ২০০৭ সালটা খুব বাজে ছিল। ২০০৮ এ এসে আমি বাজে অবস্থা থেকে মুক্তি পাই এবং এক বছরের মাঝে অনেক পরিবর্তন হয়ে যায় আমার চিন্তা-ভাবনার।

২০০৯ সালে এসে আমি বুঝতে পারি, ভালো-খারাপ থাকাটা আসলে ভাগ্যের উপরে নয়, নিজের কর্মকাণ্ডের উপরে নির্ভর করে। ২০০৭ আমার খুব খারাপ কেটেছিল। কেননা আমি আমার যা করার উচিত ছিলো তা করিনি। পড়ালেখা বাদ দিয়ে ঘুরে বেড়িয়েছি। সময়ের কাজ সময়ে করিনি। গুরুত্ব চিন্তা করে কাজ করতে পারিনি। আবেগ দিয়ে চিন্তা করেছি বেশি, নিজের যোগ্যতা আছে কি নাই তা ভাবিনি। শেষের দিকে এসে হতাশ হয়ে পড়ি। তখনআত্মবিশ্বাস ছিলো শূন্যের কাছাকাছি। ২০০৮ এ কিছুটা আত্মবিশ্বাস ফিরে আসে। মনে হয় যে আমি পারব। জীবনটা একটা ছকে নিয়ে আসি তখন। লক্ষ্য ঠিক করে তা পূরণের জন্য কাজ করার মত মানসিক শক্তি পাই। আস্তে আস্তে সফল হতে থাকি। হতাশা দূরে চলে যায়। তখন বুঝতে পারি যে, ভালো থাকার জন্য সবচেয়ে প্রয়োজন আত্মবিশ্বাস। আমি পারব এই চিন্তা। ভালোভাবে খেয়ে-পরে চলাটা তেমন কষ্টকর নয়। শুধুমাত্র পরিশ্রম করার মানসিকতা থাকলেই যথেষ্ট। আর সবচেয়ে যেটা বেশি প্রয়োজন সেটা হলো নিজের যোগ্যতা এবং আগ্রহ এই দুইটি সম্পর্কে পরিষ্কার ধারণা থাকা।

ধরুন, আপনি জানেন না যে একটা কাজে আপনি যোগ্য কিনা। আপনি আন্দাজে কাজ করা শুরু করলেন। যদি সফল হোন তাহলে নিজের প্রতি একটা ভুল বিশ্বাস জন্ম নিতে পারে। আর যদি ব্যর্থ হোন তাহলে মনে হবে আপনি ভাগ্যহীন। আপনি কিছু পারেন না। কিন্তু আপনি যখন নিজের যোগ্যতা বুঝে একটা কাজে হাত দিবেন তখন এমনটা মনে হবে না। সফল হলে মনে হবে আপনার চিন্তা সঠিক ছিল। ব্যর্থ হলে আপনি ব্যর্থতার কারণ খুঁজবেন এবং আবার চেষ্টা করবেন।
২০১৫ সালের আজকে প্রথম দিন। গত বছরের কথা চিন্তা করে দেখলাম যে, অনেক অনেক প্রাপ্তি। এত প্রাপ্তি আর কোন বছরে একসাথে আসার সুযোগ খুব কম। বেশ কিছু ক্ষেত্রে সফল হয়েছি। কিছু কিছু ক্ষেত্রে ব্যর্থতাও আছে। তবে বছরের শেষের দিকে একটা জিনিসে খুব অভাব ছিল। তা হলো, কোন কিছুর পিছনের নিয়মিত সময় দেয়া বা কন্টিনিউটি বজায় ছিল না। ২০১৫ তে এই কন্টিনিউটি বজায় রাখার ইচ্ছা এবং এটার শপথ নিলাম। আর একটা কাজ করবো ২০১৫ তে। তা হলো নিয়মিত নিজের সাইটে লিখব। এতে করে নিজের এবং অনেকের উপকার হবে।
সবার ২০১৫ সফল হোক। হতাশা সব দূরে চলে যাক। আত্মবিশ্বাস ফিরে আসুক। 🙂

Comments

comments